Deshdeshantor24com: Bangla news portal

ঢাকা শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪

শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে টাইগারদের সিরিজ জয়

শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে টাইগারদের সিরিজ জয়
সংগৃহীত ছবি

তাওহিদ হৃদয়-মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা ব্যর্থ হলে ম্যাচে ফেরে শ্রীলঙ্কা। শঙ্কা জেগেছিল জয় নিয়েও। সেই শঙ্কা উড়ে গেছে রিশাদ হোসেনের ঝড়ে। তার দারুণ এক ক্যামিওতে ৪ উইকেটের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। এই জয়ে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ।লঙ্কানদের আড়াইশর আগে আটকে রেখে জয়ের পথটা সহজ করে দিয়েছিলেন বোলাররা। ছোট লক্ষ্য তাড়ায় তানজিদ তামিমের ব্যাটে উড়ন্ত সূচনা পায় বাংলাদেশ। তবে মিডল অর্ডার ব্যাটাররা সুবিধা করতে পারেননি। 

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আজ রোববার (১৮ই মার্চ) বাংলাদেশের সিরিজ জয় অনেকটাই নিশ্চিত করে ফেলেন রিশাদ হোসেন। দেখার অপেক্ষা ছিল ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে ফিফটির কীর্তিটা গড়তে পারেন কি না। শেষ পর্যন্ত রিশাদ ফিফটি পাননি ঠিকই। 

সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে তানজিদ হাসান তামিমের নাম আজ ছিল না বাংলাদেশের একাদশে। তবে ফিল্ডিংয়ে সৌম্য সরকার চোটে পড়ায় আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী কনকাশন বদলি হিসেবে ব্যাটিংয়ে নামেন তানজিদ তামিম। ওপেনিংয়ে নেমে সুযোগটা বেশ দারুণভাবে কাজে লাগিয়েছেন জুনিয়র তামিম। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ ইনিংস খেলেন এই ম্যাচেই। এটাই মূলত বাংলাদেশের জয়ের ভিত্তি অনেকটা গড়ে দেয়। স্বাগতিকদের জয় নিয়ে যা একটু ‘যদি-কিন্তু’ ছিল, তাও দূর হয়ে যায় রিশাদের ১৮ বলে ৪৮ রানের ঝোড়ো ইনিংসে। ৯ চারের পাশাপাশি মেরেছেন ৫ ছক্কা। বাংলাদেশ ৫৮ বল হাতে রেখে পায় ৪ উইকেটের জয়।    

লিটন দাস বাদ পড়ায় তৃতীয় ওয়ানডের একাদশে সুযোগ পান এনামুল হক বিজয়। ২৩৬ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে বিজয়ের সঙ্গে ৫০ বলে ৫০ রানের জুটি গড়তে অবদান রাখেন তানজিদ তামিম। জুনিয়র তামিম একপ্রান্তে আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করলেও রয়েসয়ে খেলতে থাকেন বিজয়। এই বিজয়কে ফিরিয়েই উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন লাহিরু কুমারা। নবম ওভারের দ্বিতীয় বলে লাহিরুর আউটসাইড অফ বলটি ড্রাইভ করতে চেয়েছিলেন বিজয়। কিন্তু মিসটাইমিং হওয়া বলটি এক্সট্রা কাভারে লাফ দিয়ে তালুবন্দী করেন আভিষ্কা ফার্নান্দো। ২২ বলে ১ চারে বিজয় করেন ১২ রান।

বিজয়ের বিদায়ের পর তিন নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামেন নাজমুল হোসেন শান্ত। তবে শান্ত ৫ বল খেলে মাত্র ১ রান করেন। ১১তম ওভারের দ্বিতীয় বলে বাংলাদেশ অধিনায়ক খোঁচা দিতে যান সৌম্য। এজ হওয়া বল লঙ্কান উইকেটরক্ষক কুশল মেন্ডিস সহজেই তালুবন্দী করেন।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক কুশল মেন্ডিস। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ২৩৫ রানে অলআউট হয়েছে লঙ্কানরা। লঙ্কান ব্যাটারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ১০১ রান করে অপরাজিত থাকেন জানিথ লিয়ানাগে। ১০২ বলের ইনিংসে মেরেছেন ১১ চার ও ২ ছক্কা। লঙ্কান ব্যাটারের এটা ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি। বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন মেহেদী হাসান মিরাজ। দুটি করে উইকেট নিয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজ। সৌম্য ও রিশাদ নেন একটি করে উইকেট।


টিএ