Deshdeshantor24com: Bangla news portal

ঢাকা রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪

'বীর মুক্তিযোদ্ধা' খচিত স্মার্ট কার্ড বীরত্বের স্মারক: সিইসি

'বীর মুক্তিযোদ্ধা' খচিত স্মার্ট কার্ড বীরত্বের স্মারক: সিইসি
প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল (ছবি সংগৃহিত)

 ‘বীর মুক্তিযোদ্ধ ‘ খচিত স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ শুরু করলেন নির্বাচন কমিশন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল এই কার্ড বিতরণ করে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দেশে বলেন, ‘এই কার্ড হারাবেন না। এটি আপনাদের বীরত্বের একটি স্মারক।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) নির্বাচন ভবনে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শতাধিক মুক্তিযোদ্ধার হাতে ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা’ খচিত স্মার্ট কার্ড তুলে দেন সিইসি।

মুক্তিযুদ্ধের তাৎপর্য তুলে ধরে কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, ‘সংগ্রামের মাধ্যমেই একটি দেশ স্বাধীনতা অর্জন করে। আমাদের মুক্তিযুদ্ধে যে পরিমাণ ত্যাগ বাঙালি জাতিকে করতে হয়েছে, তা বিশ্বের ইতিহাসে স্মরণীয়। মুক্তিযুদ্ধ বেঁচে থাকে।’

দেশবাসীকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘যে চেতনার মূল্যবোধে ৩০ লাখ মানুষ শহীদ হয়েছেন, তা ধারণ করেই নির্বাচনের মাধ্যমে আর্থিক উন্নয়নে বিশ্বের দরবারে যাতে দাঁড়াতে পারি। মুক্তিযুদ্ধের ঝান্ডা যেন প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম সঞ্চারিত করতে হয়।’

এসময় স্মার্ড কার্ড পাওয়া মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে কয়েকজন প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে বীরমুক্তিযোদ্ধা সায়মা খান বলেন, ‘কৃতজ্ঞতা জানাই সিইসিসহ নির্বাচন কমিশনকে। পরিবারের সবাই আমরা জীবন বাজি রেখে দেশ মুক্ত করতে গিয়েছিলাম। আমি গর্বিত, মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান জীবিত অবস্থায় দেখে গেলাম।‘

মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী রিয়াজুল হক বলেন, ‘বীরমুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বর্তমান সরকার অনেক কাজ করেছে। এই সরকারের অধীনেই নির্বাচন কমিশন মুক্তিযোদ্ধাদের এই কার্ড দিয়েছে। তারা (মুক্তিযোদ্ধা) শুধু সম্মানটুকু পেতে চায়। এটাই তাদের দাবি, বেশি না।’

প্রায় দুই বছর পর আবারও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য এই বিশেষ স্মার্ট কার্ড বিতরণ শুরু হয়েছে। বিশেষ এই স্মার্ট কার্ডের চিপের নিচ দিয়ে লেখা থাকবে ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা’। স্মার্ট এনআইডি কার্ডে তিন স্তরের ২৫টি নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

অনুষ্ঠানে আরও অংশ নেন কমিশনের সচিব জাহাংগীর আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অংশ নেন নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবিব খান, মো. আলমগীর ও আনিছুর রহমান এবং মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ের সচিব ইশরাত চৌধুরী, জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক মাহবুবুর রহমান প্রমুখ।
এএজি